নাগেশ্বরীতে রফিকুলের অত্যাচারে অতিষ্ট এলাকাবাসী

0
197

হাফিজুর রহমান হৃদয়, নাগেশ্বরী:
কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে মাদক ব্যবসা ও গৃহবধূকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ উঠেছে রফিকুল ইসলাম নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। তার নানামুখী কুকর্মের বিরুদ্ধে কেউ কথা বললেই মিথ্যা মামলা ও প্রাণনাশের হুমকী দেয়া হচ্ছে। এমন অভিযোগ তুলে উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ বিভিন্ন দপ্তরে পৃথক দুটি লিখিত অভিযোগ করেছেন শ্লীলতাহানীর শিকার গৃহবধূ ও এলাকাবাসী।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার রায়গঞ্জ ইউনিয়নের পূর্ব সাপখাওয়া মোল্লারভিটা এলাকার মৃত আহাদ আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম দীর্ঘদিন যাবত মদ, গাঁজা, ফেন্সিডিল, ইয়াবা ট্যাবলেটসহ বিভিন্ন প্রকার মাদক ব্যবসা করে আসছে। এতে করে এলাকার যুব সমাজ মাদকের সাথে জরিয়ে তাদের জীবন নষ্ট করছে এবং এলাকায় চুরি, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধ প্রবণতা বেড়ে যাচ্ছে। কিন্তু কেউ তার এই অপকর্মে বাধা দিলে উল্টো তাকেই হুমকী প্রদান করে আসছে। রফিকুলের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে পারেন না। তার অপকর্ম ও অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী ।
এলাকাবাসী স্বাক্ষরিত অভিযোগে আরও জানা যায়, রফিকুল একবার মাদকের মামলায় জেলও খেটেছে। তবুও সে থেমে নেই। মরণব্যাধি এই মাদকের করাল গ্রাস থেকে বাঁচতে দ্রুত তাকে গ্রেফতার ও সর্বোচ্চ শাস্থির দাবি করেঝেছন এলাকাবাসী।
এদিকে পৃথক একটি অভিযোগে জানা যায়, একই এলাকার সুমন চেয়ারকোচের ড্রাইভার মোস্তাফিজুর রহমান রানার স্ত্রী ১ সন্তানের জননী লিপি বেগমকে দীর্ঘদিন থেকে নানাভাবে, কুপ্রস্তাব ও যৌন হয়রানী করে আসছিলো। উপায়ন্তর না পেয়ে লিপি বেগম বিষয়টি বাড়িতে অবগত করেন। এতে ওই মাদক স¤্রাট রফিকুল ক্ষিপ্ত হয়ে ২৯মার্চ রাতে লিপি বেগমের ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। লিপি চিৎকার করতে চাইলে তার মুখ চেপে ধরে সন্তানসহ লিপিকে প্রাণনাশের হুমকী দেয়। কিন্তু ইজ্জত বাঁচাতে লিপি বেগম চিৎকার করলে তার শাশুড়ি উঠে এসে লম্পট রফিকুলকে আটক করে। তাদের আর্ত চিৎকতারে এলাকাবাসী ছুটে আসলে রফিকুল ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়।
ঘটনায় এলাকার লোকজন শালিসে বসার কথা বললেও তারা টালবাহানা করতে থাকে। ঘটনার পর থেকেই রফিকুল পলাতক রয়েছে। পরে ৩ এপ্রিল লিপি বেগম বাদী হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ করে।
এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল-ইমরান বলেন অভিযোগ পেয়েছি ব্যবস্থা নিতে নাগেশ্বরী থানার ওসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। নাগেশ্বরী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাকির-উল ইসলাম চৌধুরী বলেন, বিষয়টি দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে। #

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here