শিক্ষকের পিটুনীতে আহত শিক্ষার্থী হাসপাতালে

0
97

উলিপুর প্রতিনিধি:
কুড়িগ্রামের উলিপুরে মোবাইল ফোন ব্যবহার করার অপরাধে এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করেছে শিক্ষক। গুরুত্বর আহত অবস্থায় ওই শিক্ষার্থীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
জানা গেছে, উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়নের পাঁচপীর কারিমিয়া নূরানী ও হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র বিপুল মিয়া (১৪) সহ কয়েকজন শিক্ষার্থীর মোবাইল ফোন ব্যবহার করায় ওই মাদ্রাসার শিক্ষক মাও. শফিকুল ইসলাম তাদের মোবাইল নিয়ে তার বাক্সে রেখে দেন। শিক্ষক শফিকুল ইসলামের বাক্সের চাবি দিয়ে গোপনে বিপুল মিয়া বাক্স খুলে মোবাইল বের করেন। শনিবার সকালে তিনি বিষয়টি জানতে পেরে শিক্ষার্থী বিপুল মিয়া, নূর আলম, রেজাউল. মার্জান কে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে বাঁশের লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করেন এবং তার কক্ষে আটকে রাখেন। এ ঘটনায় বিপুল মিয়া নামের এক শিক্ষার্থী গুরুত্বর আহত হয়। পরে বিপুল মিয়া কৌশলে পালিয়ে এসে বিকালে বাড়ির লোকজনকে জানালে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। আহত শিক্ষার্থী পৌরসভার পূর্ব শিববাড়ী গ্রামের কামরুল হাসানের পুত্র।
এ ব্যাপারে মাদ্রাসার শিক্ষক মাও. শফিকুল ইসলাম তার অপরাধ স্বীকার করে ক্ষমা চান।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারি মেডিকেল অফিসার জসিম উদ্দিন বলেন, শিশুটি নির্যাতন করার কারণে সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তার চিকিৎসা চলছে।#

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here