ভূরুঙ্গামারীতে প্রকৃতির বৈষম্য আচরণে কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি

0
59

ভূরুঙ্গামারী ব্যুরো:
গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি আর দমকা হাওয়ায় কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার আমন ধান ক্ষেতের শীষ বের হওয়া প্রায় শত বিঘা জমির ধান গাছ মাটিতে শুয়ে পড়েছে। এতে কৃষকদের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।
শুক্রবার সকাল থেকে শুরু হওয়া সারাদিনের বৃষ্টি আর রাতের দমকা হাওয়ায় উপজেলার দশ ইউনিয়নের কমপক্ষে শত বিঘা জমির আমন ধান গাছ বাতাসে মাটিতে শুয়ে পরেছে। বৃষ্টিতে কিছু জমিতে পানিও জমে গেছে। মাটিতে শুয়ে পড়া ধানের শীষ পচনের হাত থেকে বাঁচাতে তিন/চার গোছা ধান গাছ একত্রিত করে ঝুঁটির মতো করে বেঁধে দিচ্ছেন কৃষকরা।
উপজেলার শিলখুড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ ধলডাঙ্গা গ্রামে গিয়ে দেখা যায় কৃষক গোলজার মিয়া ও খলিলুর রহমান মাটিতে লেপ্টে থাকা ধান গাছের তিন/চার গোছাকে একত্রিত করে পরম মমতায় বেঁধে দিচ্ছেন। গোলজার মিয়া জানান ধানের শীষ পচনের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য কয়েক গোছা একখানে করে বেধে সোজা করে দিচ্ছি। এক বিঘা জমি বর্গ নিয়ে ধান চাষ করেছি। এমনিতেই বাজারে ধানের দাম কম, বাতাসে পুরো জমির ধান মাটিতে শুয়ে পড়েছে, ধান যদি নষ্ট হয়ে যায় তাহলে জমির মালিককে কি দেব আর নিজেই বা কি পাবো?
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান জানান, চলতি মৌসুমে উপজেলার ১৬ হাজার ৭১৪ হেক্টর জমিতে আমন ধান চাষ হয়েছে। বৃষ্টিপাত ও দমকা হাওয়ায় প্রায় ১০ থেকে ১৫ হেক্টর জমির ধান মাটিতে শুয়ে পড়েছে। ধানের ক্ষতি কমাতে কৃষকদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here