কুড়িগ্রাম জেলা কারাগার বন্দি সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন কারা কর্তৃপক্ষ

0
53

স্টাফ রিপোটার:
কুড়িগ্রাম জেলা কারাগারে ধারণ ক্ষমতার চারগুণ বেশি বন্দি থাকায় মারাত্মকভাবে হিমশিম খাচ্ছেন জেলা কারা কর্তৃপক্ষ। বন্দিদের অতিরিক্ত চাপ সামাল দিতে বন্দি ওয়ার্ডের বারান্দায় লোহার গ্রিল লাগিয়ে বন্দি রাখার ব্যবস্থা করেছেন কারা কর্তৃপক্ষ। সরেজমিনে খোঁজ নিতে গেলে এমনটি জানান জেলা কারাগারের জেলার মো. লুৎফর রহমান। তবে অতিরিক্ত বন্দি অন্তরিন থাকায় অনেক বন্দিকেই যে সুযোগ সুবিধা সঠিকভাবে দেয়া যাচ্ছেনা সে কথা তিনি স্বীকার করেছেন। এ অবস্থায় দ্রুত ধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধির বিষয়ে উর্দ্ধতন মহলে জানাবেন বলেও জানান এ কর্মকর্তা।
কুড়িগ্রাম কারাগার সূত্র জানায়, কুড়িগ্রাম জেলা কারাগারে চারটি পুরুষ ওয়ার্ড ও দুটি মহিলা ওয়ার্ড মিলে মোট বন্দি ধারণ ক্ষমতা ১৬৩। এর মধ্যে পুরুষ বন্দি ধারণ ক্ষমতা ১৪৫ এবং নারী বন্দি ধারণ ক্ষমতা ১৮। কিন্তু বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরে বন্দির সংখ্যা ক্রমবর্ধমান থাকায় তা কারাগারের স্বাভাবিক ধারণ ক্ষমতার চার গুণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। অতিরিক্ত বন্দিও চাপে বন্দি ওয়ার্ড গুলোর বরান্দায় লোহার গ্রিল লাগিয়ে সেখানে বন্দিদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) পর্যন্ত কুড়িগ্রাম জেলা কারাগারে মোট বন্দি রয়েছে ৭শ’ ৪৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ বন্দি ৭শ’ ২২ এবং নারী বন্দি ২৭ জন।
সূত্র আরও জানায়, মোট বন্দির মধ্যে ১০৫ জন সাজাপ্রাপ্ত পুরুষ ও ৫ জন সাজাপ্রাপ্ত নারী রয়েছে। অন্যান্যরা সকলে বিচারাধীন বন্দি হিসেবে আটক রয়েছে। তবে তাদের মধ্যে মাদক সংক্রান্ত মামলার আসামি প্রায় তিন শতাধিক।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন কারারক্ষী জানান, অতিরিক্ত বন্দির চাপে কারাগারের অভ্যন্তরের স্বাভাবিক পরিবেশ বিঘিœত হচ্ছে। বন্দির চাপ সামাল দিতে কারকর্তৃপক্ষকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।
জেলা কারাগারের জেলার মো. লুৎফর রহমান জানান, কুড়িগ্রাম জেলা কারাগারে সবসময় ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত বন্দি থাকে। গরম মৌসুমে এ নিয়ে আমাদের বিপাকে পড়তে হয়। বর্তমানে অতিরিক্ত বন্দির চাপে আমাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।
কারার জেলার আরও জানান, কারাগারের ধারণ ক্ষমতা বাড়ানোর প্রস্তাব করে আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিত প্রতিবেদন পাঠিয়েছি। কর্তৃপক্ষ বিবেচনায় নিলে কারাগারের ধারণ ক্ষমতা বাড়তে পারে।
প্রসঙ্গত, উপ-কারাগার হিসেবে যাত্রা শুরু করা কুড়িগ্রাম কারাগার ১৯৮৭ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি জেলা কারাগার হিসেবে যাত্রা শুরু করে। মোট পৌনে সাত একর জায়গা নিয়ে গঠিত এ জেলা কারাগারের অভ্যন্তরীণ আয়তন (মূল কারাগার) ৩.৮৬ একর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here