ফুলবাড়ীতে সেতু থাকলেও নেই সংযোগ সড়ক

0
66

রবিউল ইসলাম বেলাল, ফুলবাড়ী :
জমি অধিকরনের দোহাই ঠিকাদারের। সেতু থাকলেও নেই কোনো সংযোগ সড়ক। কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের জোতিদ্রনারায়ন গ্রামে অবস্থিত ৬ কোটি ২০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মান করা হয়েছে সেতু। সেতু থাকলেও সড়ক সংযোগের কোনো ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি।
সেতু সংযোগ না থাকার কারনে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে জোতিন্দ্রনারায়ন, চরপ্যাচাই ছিটমহল, বোয়ালমারী, খারুয়া, চরপ্যাচাই, তালুক শিমুলবাড়ীর ছয়টি গ্রামের ৪০ হাজার মানুষের। সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, গত বছরের ২০১৭ সালে সেতুর কাজ শুরু করেন লালমনিরহাট জেলার আদিতমারি উপজেলার আব্দুল হাকিম কনট্রাকশন। তিনি গত ২০১৯ সালের জুন মাসে সেতুর কাজ শেষ করেছেন। কিন্তু দুই পার্শ্বের সড়ক সংযোগ এখনও শেষ করতে পারেনি। স্থানীয় বাসিন্দা আমজাদ হোসেন(৭০), আব্দুল মজিদ(৪৫) ও আজাহার আলী(৫৫) জানান, আমরা পাাঁচ গ্রামের মানুষ বন্যার সময় নৌকা দিয়ে পাড়াপার হই। বন্যার পানি কমে গেলে এখানে বাঁশের চাটাই (জাকলা) দিয়ে পাড় হতে হয় আবার টাকা দিয়ে। ভারি জিনিসপত্র নিয়ে যাতায়ত করতে অনেক সমস্যা হয়। অনেক সময় স্কুল কলেজের কোমলমতি ছাত্র/ছাত্রী ও বয়স্ক মানুষ পাড় হতে হয় জীবনের ঝুকি নিয়ে। ঘটে যায় অনেক দুর্ঘটনা। নদী পাড় হতে বাঁশের সাকোই একমাত্র ভরসা প্রায় ৪০ হাজার মানুষের। দেখার কেউ নেই। অনেকবার ঠিকাদারদের বলা হয়েছে তারা আমাদের কথা একবারও শোনেননি।
লালমনিরহাট জেলার এলজিইডির নির্মিত কাজের সাবস্টেশন ইঞ্জিনিয়ার মো. মফিজুর রহমান জানান, সেতুর কাজ শেষ করেছি জুন মাসে সেতুর দুই পার্শ্বের জমি অধিকরন করা না থাকায় স্থানীয় জমির মালিকরা সড়ক সংযোগ দিতে দিচ্ছেনা। আমরা উপর মহলে জানিয়েছি তারা বিষটি নিস্পত্তি করবেন।
সেতু নির্মান ঠিকাদার আব্দুল হাকিম স্বপন প্লাবন জানান, সেতুর বরাদ্দের বাহিরে যেতে পারবোনা। সেতুর পূর্ব-পশ্বিমে জমি অধিকরন করা নেই। সড়ক সংযোগ দেয়ার জন্য নব্বই শতাংশ জমি লাগে যাহার মূল্য ৩৫ থেকে ৪০ লক্ষ টাকা। লালমনিরহাট এলজিইডির কর্মকর্তারা সেখানে গিয়ে দেখেছেন বিষয়টি তারা আমাদের পরবর্তিতে জানাবেন।
এ ব্যাপারে শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. এজাহার আলীর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, সেতু নির্মান করার সময় অনেবার সেতুতে গিয়েছিলাম। ঠিকাদার অনেক আগে কাজ শেষ করেছেন কিন্তু সড়ক সংযোগ তারা দিতে পারেননি। ছয় গ্রামের প্রায় ৪০ হাজার মানুষের বসবাস, তাদের কথা চিন্তা করে আমি লালমনিরহাট জেলার এলজিইডি কর্মকর্তা ও সরকার দলীয় নেতাদের অনুরোধ করেছি। তারা আশ্বাস দিয়েছেন যতো তারাতারি সম্ভব সড়ক সংযোগ দিবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here