ফুলবাড়ীতে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ, থানায় মামলা

0
60

ফুলবাড়ী প্রতিনিধি:
কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তি উত্তর অনন্তপুর ফেলানীর মোড় এলাকার (মোল্ল্যাাটারী) গ্রামে সপ্তম শ্রেণীর এক স্কুল পড়ুয়া ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে।
গত বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে উত্তর অনন্তপুর গ্রামের খবিজলের লম্পট ছেলে মো. নাজমুল হোসেন(২৫) প্রায় উত্যাক্ত্য করত। একই গ্রামের দুলু মিয়ার মেয়ে পশ্চিম রামখানা ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে। এলাকার লোকজনসহ ওই ছাত্রীর স্বজনেরা বারবার নাজমুলের পরিবারের কাছে নালিশ জানালেও তারা অভিযোগ আমলে নেননি। বিচার চাইতে গেলে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে লম্পট ধর্ষক নাজমুল হোসেন। বাড়ীর লোকের অনুপুস্থিতির সুযোগ নিয়ে সেদিন ওই ছাত্রী তার খালা রেজিয়া বেগমের বাড়ীতে একাই টিভি দেখার সময় তার ঘরে প্রবেশ করে শরীরের বিভিন্ন অংশে দাঁতের কামড় বসিয়ে ক্ষতবিক্ষত করে একাধীকবার ধর্ষণ চালায়। এক সময় ছাত্রী অজ্ঞ্যান হয়ে যায়। পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা চালানোর ব্যবস্থা করার চেষ্ঠা করলেও তা করতে পারেনি। বাধা প্রদান করেন ধর্ষক নাজমুলের বাবা খবিজল। হুমকি দিতে থাকে থানায় মামলা না করার জন্য। শুক্রবার রাত ১১ টায় ফুলবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ফুলবাড়ী হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সোহেব জানান, ছাত্রীকে উন্নত চিকিৎসা ও মেডিকেল চেকআপ করার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে ধর্ষক নাজমুল হোসেন (২৫) ও তার সহযোগী নাগেশ্বরী উপজেলার রামখানা ইউনিয়নের মৃত আব্দুল শেখের ছেলে মো. ফজলে রহমান ওরফে ফজল(৫০) এর নামে ফুলবাড়ী থানায় তাদের বিরুদ্ধে মেয়ের খালা বাদি হয়ে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। (ফুলবাড়ী থানার মামলা নং-০৮)। ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ রাজীব কুমার রায় জানান, মামলা হয়েছে আসামী গ্রেফতারের চেষ্ঠা চলছে, ভিকটিমকে উন্নত চিকিৎসা ও মেডিকেল চেকআপ এর জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here